20160601_211724

20160601_200936১৯৭৭ সালে নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়  মঞ্চে আনে ‘দেওয়ান গাজীর কিসসা’। এরপর থেকে নিয়মিত মঞ্চায়নে এ প্রযোজনাটি দর্শকের ব্যাপক প্রশংসা অর্জন করে। বের্টোল্ট ব্রেশটের নাটকটির রূপান্তর ও নির্দেশনা দিয়েছেন আসাদুজ্জামান নূর। প্রায় ১২ বছর এ নাটকের প্রদর্শনী বন্ধ থাকার পর গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে গঙ্গা-যমুনা নাট্য উৎসবের মধ্যে দিয়ে এটি আবার মঞ্চে আসে। ‘দেওয়ান গাজীর কিসসা’র দেওয়ান গাজী ও মাখন চরিত্রে যথাক্রমে আলী যাকের ও  আবুল হায়াত অভিনয় করেন। তবে মাখন চরিত্রে আবুল হায়াত এখন আর অভিনয় করছেন না। তার জায়গায় অভিনয় করছেন পান্থ শাহরিয়ার । নাটকটির অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র লাইলী’র ভূমিকায় এখন অভিনয় করছেন রুনা খান। এই চরিত্রটিতে এর আগে সারা যাকের, নিমা রহমান ও বিপাশা হায়াত অভিনয় করেছেন। এছাড়া  নাটকটিতে অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন ও করছেন সারা যাকের, মোস্তাফিজ শাহীন, ফারুক আহমেদ, লাবণ্য, ঝুমু মজুমদার, শামীমা নাজনীন, অরণ্য, জিয়াউল হাসান কিসলু, গোলাম admin-ajax সারোয়ার, বেলায়েত হোসেন মিরু প্রমুখ।

গত বুধবার (১ জুন) বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পরীক্ষণ থিয়েটার হলে আরেকবার মঞ্চস্থ হল ‘দেওয়ান গাজীর কিসসা’। প্রায় দুই ঘন্টার বিদ্রূপাত্মক এই নাটকটির মূল উপজীব্য শ্রেণী বৈষম্য। দেওয়ান গাজী চরিত্রে আলী যাকের এখনও অনবদ্য। পান্থ শাহরিয়ার ও রুনা খান এই নাটকের নতুন সংযোজন হলেও তাদের কাজও ছিলো চোখ ধাঁধানো। বয়সের ভারে কিছুটা ক্লান্ত সারা যাকেরও অভিনয় করেছেন পাল্লা দিয়ে। বাংলাদেশের মঞ্চ নাটকের ইতিহাসে কমপ্লিট প্রোডাকশন হিসেবে ‘দেওয়ান গাজীর কিসসা’ একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে।

0 replies

Leave a Reply

Want to join the discussion?
Feel free to contribute!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *